মোঃ নুরুজ্জামানঃ কেউ কেউ দ্বারে দ্বারে ঘুরছে বিচার পাওয়ার আশায়। আবার কেউ কেউ আছে বিচার চাওয়ার আগেই আইনের লোকেরা অনেক যায়গায় হাজির হয়। সত্য মিথ্যা পরে যাচাই-বাছাই হয়। কথিত আছে গরীব অপরাধ করলে তার বিচার হয়। গরীবের উপর কেউ অন্যায় অত্যাচার করলে তার কোন বিচার হয় না। অনেকেই খুন করলেও প্রকাশ্য দিবালোকে ঘুরে বেড়াই। আবার বিনা দোষে অনেকেই যড়যন্ত্রের শিকার হয়৷ সত্য অভিযোগ দেওয়ার পরও কোন সমাধান হয় না। আবার হয়রানি মুলক মামলায় হাজতে যেতে হয়। অভিযোগ সত্য পকেটে টাকা নেই – ফাইল নড়ে না। কথা আমার নয় ভুক্তভোগীদের। বিশেষ করে সাংবাদিকরা সত্য কথা প্রকাশ করে বলেই তাদের উপর হামলা মামলা হয়৷ তবে সাংবাদিকদের উপর হামলার ঘটনায় কোন বিচার হয়েছে কিনা আমার জানা নেই। সাংবাদিক জাতির বিবেক হলেও তাদের কোন নিরাপত্তা নেই। তাই বলে সাংবাদিকরা যে অপরাধ করে না সেটাও না। তবে কোন প্রভাবশালীর বিরুদ্ধে সত্য কথা লেখলেও কাজ হয় না। কিন্তু মাঝে মধ্যে হুমকি শুনতে পাবেন।

কোন অসুবিধা হবে না। এই জন্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর লোকজনদের বলতে চাই আপনারা আইনের লোক আপনাদের কাছে যেই অভিযোগ করে যাচাই- বাছাই করে আইনগত ব্যবস্থা নিবেন। আপনারা তা-ই নেন এটা আমার বিশ্বাস। অপরাধি যতোই ক্ষমতাশালী হোক আপনাদের কাছে সবাই সমান আবারও সেই প্রত্যাসা করছি। আরেকটা অনুরোধ করবো সাংবাদিকের পরিচয়ে যারা অপরাধ করছে তাদেরও আইনের আওতায় এনে কঠিন শাস্তি দেওয়া হোক।