নীলাকাশ টুডেঃ চট্টগ্রামে ১০ দিন আগে নিখোঁজ হওয়া ছয় বছর বয়সী এক শিশুকন্যাকে হত্যার ঘটনায় এক তরুণকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

শুক্রবার (২৫ নভেম্বর) এক সংবাদ সম্মেলনে পিবিআই জানায়, বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) সিইপিজেডের আকমল আলী রোডের পকেট গেট এলাকা থেকে ওই শিশুদের বাড়ির সাবেক ভাড়াটিয়া আবির আলীকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পিবিআই জানিয়েছে, মুক্তিপণের জন্য অপহরণের পর শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয় বন্দরটিলার শিশুকন্যা আয়াতকে। হত্যার পর মরদেহ ছয় টুকরা করে তা বে টার্মিনাল এলাকায় সাগরপাড়ে ফেলে দেয় হত্যাকারী।

পিবিআই পুলিশ সুপার নাঈমা সুলতানা জানান, গ্রেপ্তারের পরপরই হত্যার কারণ ও লাশ ছয় টুকরো করে সাগর পাড়ে ফেলে দেওয়ার কথা স্বীকার করেন আবির আলী।

জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, আবির আলী আয়াতদের বাড়ির সাবেক ভাড়াটিয়া। মুক্তিপণ আদায়ের উদ্দেশ্যে ঘটনার দিন বিকেলে আয়াতকে অপহরণ করে শ্বাসরোধে হত্যা করেন তিনি। এরপর আকমল আলী সড়কের বাসায় নিয়ে মরদেহ ছয় টুকরো করে কাট্টলীর সাগরপাড়ে ফেলে দেন।

 

পুলিশ সুপার আরো জানান, হিন্দি সিরিয়াল ক্রাইম পেট্রোল ও সিআইডি দেখে ছয় মাস আগে থেকে এই পরিকল্পনা করেন আবির। তার বাসা থেকে টুকরো করার কাজে ব্যবহার করা বটি ও অ্যান্টি কাটার উদ্ধার করা হয়েছে ।

উল্লেখ্য, গত ১৫ নভেম্বর চট্টগ্রামের ইপিজেড থানার বন্দরটিলা এলাকার নয়ারহাট বিদ্যুৎ অফিস এলাকার বাসা থেকে পার্শ্ববর্তী মসজিদে আরবি পড়তে যাওয়ার সময় নিখোঁজ হয় আলিনা ইসলাম আয়াত। এর পরদিন শিশুটির বাবা সোহেল রানা এ ঘটনায় ইপিজেড থানায় নিখোঁজের ডায়েরি করলেও তার কোন হদিস মিলেনি। অবশেষে ১০ দিন পর এ নিখোঁজ রহস্যের জট খুললো পিবিআই।