নীলাকাশ টুডেঃ চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের প্রশাসনিক ভবনের সামনের নালা থেকে এক নবজাতকের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টায় ওই নবজাতকের লাশ দেখতে পান হাসপাতালের পরিচ্ছন্নতাকর্মীরা।

হাসপাতালের উপপরিচালক আফতাবুল ইসলাম বলেন, পলিথিনে মোড়ানো এক নবজাতকের লাশ নালায় পড়ে ছিল। লাশটি ক্ষতবিক্ষত ছিল। প্রথমে দেখে মনে হচ্ছিল এ আসলে দুটি নবজাতকের লাশ। পরে দেখা যায়, এটি আসলে একটি নবজাতকের লাশ। বিষয়টি হাসপাতালের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জানানো হয়েছে। লাশটি কোথা থেকে কীভাবে এল, তা পুলিশ খতিয়ে দেখবে।

এ বিষয়ে হাসপাতাল পুলিশের সহকারী উপপরিদর্শক শহীদুল ইসলাম বলেন, নবজাতকের লাশটি মর্গে রাখা হয়েছে। পরে তা আঞ্জুমান মুফিদুল ইসলামে দেওয়া হবে।

 

আরও পড়ুন

কোটিপতির তালিকায় যুক্ত হলেন ভিক্ষুক!

নীলাকাশ টুডেঃ একজন ভিক্ষুকের মাসিক আয় হয় তো সর্বোচ্চ ৫ থেকে ১০ হাজার টাকা হতে পারে। কিন্তু ভারতে এক ভিক্ষুকের খোঁজ পাওয়া গেছে, যার মাসিক আয় ও সম্পত্তির পরিমাণ শুনলে চোখ কপালে উঠবে।

ভরত জৈন (৫০) নামের ওই ভিক্ষুককে ভারতের সবচেয়ে ধনী ভিক্ষুক বলে দাবি করা হচ্ছে।

আনন্দবাজার পত্রিকা জানিয়েছে, ভরত মুম্বাইয়ের প্যারেল এলাকাতে ভিক্ষা করেন। তার মাসিক আয় ৭৫ হাজার টাকার বেশি।

শুধু তাই নয়, ভরতের দুটি অ্যাপার্টমেন্ট আছে। যার এক একটির দাম ৭০ লাখ টাকা। বাবা, দুই ভাই, স্ত্রী এবং দুই ছেলে নিয়ে ভরতের সংসার।

ভিক্ষা করা ছাড়াও ভরতের একটি দোকান আছে। ওই দোকান ভাড়া দিয়ে মাসে ১০ হাজার টাকা পান তিনি।

শুধু ভরতই নন, এ তালিকায় রয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের কলকাতার লক্ষ্মী দাসও। ১৯৬৪ সাল থেকে মাত্র ১৬ বছর বয়স থেকেই ভিক্ষা শুরু করেন লক্ষ্মী। জীবনের প্রায় ৫০ বছর ভিক্ষা করেই অর্থ সংগ্রহ করেছেন। লক্ষ্মীর মাসিক আয় ৩০ হাজার টাকা। ব্যাংকে বিপুল টাকা গচ্ছিত রয়েছে তার।