ঢাকা অফিসঃ হাফেজ সালেহ আহমেদ তাকরীমকে সংবর্ধনা দিয়েছে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় ও ইসলামিক ফাউন্ডেশন। তাকরীম মক্কায় অনুষ্ঠিত কিং আবদুল আজিজ আন্তর্জাতিক হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতার চতুর্থ বিভাগে তৃতীয় স্থান অর্জন করেছিল।

মঙ্গলবার (২৭ সেপ্টেম্বর) সকালে জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে দেওয়া এ সংবর্ধনায় তাকে দুই লাখ টাকার চেক, সম্মাননা ক্রেস্ট ও উপহার তুলে দেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী।

১৩ বছরের শিশু হাফেজ সালেহ আহমদ তাকরীম। গেলো ২২ সেপ্টেম্বর সৌদি আরবে কোরআন তেলাওয়াতের বিশ্ব প্রতিযোগিতায় ১১১টি দেশের আরবী ভাষাভাষীসহ ১৫৩ জন প্রার্থীর মধ্যে তৃতীয় স্থান অর্জনের গৌরব অর্জন করেন তাকরীম।

এই অর্জনের জন্য বায়তুল মোকাররমের এই সংবর্ধনা অনুষ্ঠানেও তাকরীমের সুরেলা কণ্ঠে কোরআনের তেলাওয়াত দর্শকদের মুগ্ধ করে।

 

বিজয়ী তাকরীমকে এক নজর দেখা এবং তার সুমধুর কণ্ঠে পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত শোনার জন্য বিভিন্ন অঞ্চলের মাদরাসার ছাত্র শিক্ষকরা সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে জড়ো হন।

অনুষ্ঠানে তাকরীমের বাবা হাফেজ আবদুর রহমান দেশবাসীর কাছে তার সন্তানের সফলতার জন্য দোয়া চান। তার শিক্ষক জানান অধ্যবসায় আর একাগ্র সাধনার কারণেই বিশ্ব দরবারে হাফেজ সালেহ আহমদ তাকরীমের এই অর্জন সম্ভব হলো।

অনুষ্ঠানে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান বলেন, হাফেজ সালেহ আহমদ তাকরীম আন্তর্জাতিক হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতায় বিজয়ী হয়ে বাংলাদেশের জন্য সুনাম বয়ে এনেছে।

প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, বিশ্ব কোরআন প্রতিযোগিতায় তৃতীয় স্থান অর্জন করে বাংলাদেশের জন্য যে সম্মান বয়ে এনেছেন তা এদেশের শিশু-কিশোরদের দারুণভাবে অনুপ্রাণিত করবে।

তাকরীমের হাতে দুই লাখ টাকার চেক তুলে দেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান। তিনি বলেন ইসলামের প্রকৃত শিক্ষাকে এগিয়ে নিতে বর্তমান সরকারও বিভিন্ন উদ্যোগ নিয়েছে।

 

সৌদি আরবের আগে ইরানে আন্তর্জাতিক হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতাতেও প্রথম স্থান অর্জন করেন হাফেজ সালেহ আহমদ তাকরীম।

পবিত্র মক্কায় সম্প্রতি অনুষ্ঠিত ৪২তম বাদশাহ আব্দুল আজীজ আন্তর্জাতিক হিফজুল কোরআন প্রতিযোগিতায় ১১১টি দেশের মধ্যে ৩য় স্থান অর্জন করায় তাকরীম প্রায় ত্রিশ লাখ টাকা এবং মূল্যবান সনদ অর্জন করেন।