নীলাকাশ টুডেঃ দেশমাতার কাছে একটু নিরাপত্তা চেয়েছেন অভিনেত্রী পরীমণি। সোমাবার বিকালে ফেসবুকে একটি পোস্ট দিয়ে তিনি এই নিরাপত্তা চেয়েছেন।

পরীমণি তার পোস্টে লিখেছেন, দেশমাতা, আমাকে কি একটু নিরাপত্তা দিতে পারেন! রাস্তায় মানুষগুলোও এতো অনিরাপদ না। একবার একটু দেখেন না আমার দিকে, কি করে বেঁচে আছি।

এর আগে ৫ সেপ্টেম্বর হাতে লেখা একটি চিঠির ছবি ফেসবুকে পোস্ট করে লড়াই করে বেঁচে থাকার নেপথ্যের গল্প তুলে ধরে ছিলেন। সেখানে তিনি লিখেছিলেন, “একটা চিঠি। আমার সব শক্তির গল্প এখানেই।” পোস্ট করা চিঠিতে দেখা যায়, “নানু আমি ভালো আছি। কোনো চিন্তা করবা না। তোমার সাথে শিগ্রই দেখা দিবো।”

চিঠির বিষয়ে পরীমণি জানান, “আমি গ্রেফতার হওয়ার পর নানু ভাই আমাকে চিঠিটি দিয়েছিলেন। এরপর থেকেই আমি এটি অক্ষত রাখার চেষ্ঠা করেছি। আটক, রিমান্ড, জেলসহ নানান প্রতিকূলতার মধ্যেও শেষ পর্যন্ত আমি এটি অক্ষত রাখতে পেরেছি। এই চিঠিটি আমার জীবনের একটি শক্তি।”

গত ৪ আগস্ট রাতে প্রায় চার ঘণ্টার অভিযান শেষে বনানীর বাসা থেকে মাদকসহ পরীমণি ও তার সহযোগী দীপুকে আটক করে র‌্যাব। এরপর ৫ আগস্ট র‌্যাব বাদি হয়ে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে পরীমণি ও তার সহযোগীর বিরুদ্ধে বনানী থানায় মামলা করে। এরপর রিমান্ড-জেল শেষে গত ৩১ আগস্ট ৫০ হাজার টাকা মুচলেকা ও তিন বিবেচনায় পরীমণির জামিন মঞ্জুর করেন ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশ।

আরও পড়ুন

সরকারি কলেজের ছাত্রীদের টয়লেটে ফুটফুটে নবজাতক

নীলাকাশ টুডেঃ খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজের ছাত্রীদের কমন রুমের টয়লেট থেকে এক নবজাতক উদ্ধার করা হয়েছে। সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে খবর পেয়ে কলেজ কর্তৃপক্ষ এ নবজাতককে উদ্ধার করে। নবজাতকের মা ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছে বলে জানা গেছে।

খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ রফিক উদ্দিন সাংবাদিকদের বলেছেন, ২০২১ শিক্ষাবর্ষের এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের অ্যাসাইনমেন্ট জমা নেওয়ার নির্ধারিত দিনে অনেক শিক্ষার্থী এসেছিল। ছাত্রীদের কমন রুমের টয়লেটে নবজাতকের কান্না শুনে শিক্ষার্থীরা খবর দিলে তাকে উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। এ ঘটনায় খাগড়াছড়ি সদর থানায় সাধারণ ডায়েরি করার প্রস্তুতি চলছে।

খাগড়াছড়ি শহর সমাজসেবা কেন্দ্রের পরিচালক নাজমুল আহসান বলেছেন, কলেজের টয়লেটে নবজাতকের কান্না শুনে সদ্য ভূমিষ্ঠ শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়। বর্তমানে তাকে নবজাতক পরিচর্যা কেন্দ্রে রাখা হয়েছে। আইনি প্রক্রিয়া অনুসরণ করে কোনো অভিভাবক চাইলে শিশুটিকে দত্তক নিতে পারবে।

আরও পড়ুন

২৯ বছর পলাতক থাকা যাবজ্জীবন দণ্ডিত আসামি গ্রেফতার

নীলাকাশ টুডেঃ ১৯৯২ সালে রংপুরে চাঞ্চল্যকর ইব্রাহিম হত্যা মামলার যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামি আবুল কালাম আজাদকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ন (র‍্যাব)। দণ্ডপ্রাপ্ত এ আসামি দীর্ঘ ২৯ বছর ধরে পলাতক ছিলেন বলে জানা গেছে।

দুই যুগের বেশি সময় ধরে তাকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর লোকজন খুঁজে বেড়াচ্ছিল। অবশেষে শেষ রক্ষা হয়নি। পাপ বাপেরও ছাড়েনা আবারও তার প্রমাণ পাওয়া গেলো।

সোমবার সকালে র‍্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের সহকারী পরিচালক এএসপি আ ন ম ইমরান খান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, রোববার রাতে রাজধানীর মিরপুরের পাইকপাড়া থেকে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত পলাতক এ আসামিকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব-৪।

এ বিষয়ে দুপুরে রাজধানীর কারওয়ান বাজার র‍্যাব মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে বিস্তারিত জানানো হবে বলেও জানান র‍্যাবের এ কর্মকর্তা।