সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০৬:৫৯ পূর্বাহ্ন
নোটিশঃ
সাতক্ষীরায় একজনের ফাঁসি শ্যামনগরে সড়ক দুর্ঘটনায় অফিসার সহ আহত ৩ সাতক্ষীরায় ট্রাকের ধাক্কায় গৃহবধূ নিহত হিরো আলমকে তথ্যমন্ত্রীর অভিনন্দন তাদেরকে হেদায়েত কর, না হলে মাটিতে মিশিয়ে দাও! শ্যামনগরে হরিণের মাংস সহ ডিঙ্গি নৌকা আটক বেনাপোলে ফেনসিডিল সহ দুই মাদক ব্যবসায়ী আটক ওয়াজ মাহফিলে দাওয়াত না পেয়ে আ.লীগের দু’পক্ষের বাড়িঘর ভাঙচুর হত্যা মামলার আসামিকে কুপিয়ে হত্যা গ্রাহকদের কাছ থেকে দাম বেশি নিয়ে ডাকাতি করছেন গ্যাস ব্যবসায়ীরা! স্ত্রীকে কুপ্রস্তাব, ব্যবসায়ীকে বাসায় ডেকে শেষ করলেন স্বামী ঢাকায় ‘ছোঁ পার্টির’ ১৬ জন গ্রেফতার স্বর্ণের দাম কমল ভরিতে যত বাংলাদেশ ও পাকিস্তানি পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বৈঠক ফেসবুক লাইভে এসে যা বললেন হিরো আলম

ভ্যান চুরি করে ইজিবাইক উপহার পেলেন হেলাল!

যশোর অফিসঃ
আপডেট মঙ্গলবার, ২৪ জানুয়ারী, ২০২৩, ৫:২৬ অপরাহ্ন

যশোরের মনিরামপুর উপজেলার কাশিমপুর গ্রামের রকিবুল ইসলামের ছেলে পঙ্গু প্রতিবন্ধী শাহিনুর ইসলাম (৪১)। উপার্জনের একমাত্র সম্বল ভ্যানে করে ঝালমুড়ি এবং ফল বিক্রি করতেন তিনি।

গত বছরের ১৯ সেপ্টেম্বর গভীর রাতে বাড়ি থেকে শাহিনুরের ভ্যানটি অজ্ঞাত চোরেরা চুরি করে নিয়ে যায়। উপার্জনের একমাত্র বাহন হারিয়ে সন্তানদের নিয়ে অনাহারে দিন কাটাতে থাকেন তিনি।

 

সোস্যাল মিডিয়ায় এমন হৃদয় বিদারক ঘটনা ছড়িয়ে পড়লে বিষয়টি যশোর জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নজরে আসে। এক পর্যায়ে খোয়া যাওয়া ভ্যান উদ্ধারের আশায় প্রতিবন্ধী শাহিনুরও যশোর জেলা গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) পুলিশের কাছে যায়।

এরপর ডিবি পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রুপন কুমার সরকার ও ডিবি পুলিশের উপ-পরিদর্শক মফিজুল ইসলাম প্রতিবন্ধী শাহিনুরের ভ্যানটি উদ্ধার ও জড়িতদের গ্রেপ্তারে অভিযানে নামেন।

এক পর্যায়ে ডিবি পুলিশ প্রতিবন্ধী শাহিনুরের খোয়া যাওয়া ভ্যানসহ চুরি কাজে জড়িত মনিরামপুর সতীঘাটা এলাকার কাদের দফাদারের ছেলে হেলাল উদ্দিনকে (২৭) গ্রেপ্তার করে। এদিকে প্রতিবন্ধী শাহিনুরও গণ্যমান্য ব্যক্তিদের কাছ থেকে একটি নতুন ভ্যান উপহার পান।

এ সময় চুরি কাজে জড়িত হেলাল উপ-পরিদর্শক মফিজুল ইসলামের কাছে অঙ্গিকার করেন যে, সে যদি স্বাভাবিক জীবনে ফেরার সুযোগ পায় এবং কর্মসংস্থান পেলে সে এ অপরাধের জগৎ থেকে বেরিয়ে আসবে। এরপর পুলিশের উপ-পরিদর্শক মফিজুল ইসলাম যশোরের একটি সামাজিক সংগঠন সামাজিক সচেতন সংস্থা (সাসস) এর সঙ্গে যোগাযোগ করেন এবং সামাজিক সংগঠন ‘সাসস’ এর পক্ষ থেকে অপরাধী হেলালকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে দিতে এবং কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করে দেবার লক্ষ্যে একটি ইজিবাইক উপহার দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়।

মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারি) সকালে প্রেসক্লাব যশোরের সামনে অপরাধী হেলালের কাছে এ উপহারের ইজিবাইকের চাবি তুলে দেওয়া হয়। প্রতিবন্ধী শাহীন এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ইজিবাইকের চাবিটি অপরাধী হেলালের হাতে তুলে দেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রেসক্লাব যশোরের সভাপতি জাহিদ হাসান টুকুন, ডিবি পুলিশের উপ-পরিদর্শক মফিজুল ইসলাম ও সামাজিক সচেতন সংস্থার সদস্যবৃন্দরা।

ডিবি পুলিশের উপ-পরিদর্শক মফিজুল ইসলাম বলেন, প্রতিবন্ধী শাহিনুরের ভ্যান উদ্ধার করে তার কাছে ভ্যানটি ফিরিয়ে দেওয়া হয়। এদিকে শাহিনুরও আরও একটি ভ্যান উপহার পান। এ সময় শাহিনুর বলেন, স্যার আমার তো দুটো ভ্যান, এরা যদি এ চুরি কাজ থেকে বেরিয়ে আসে তাহলে আমি এদের একটা ভ্যান উপহার দেব। এদিকে অপরাধী হেলালও স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার অঙ্গিকার করে বলেন, আমি অপরাধের জগৎ থেকে বেরিয়ে আসতে চাই আমাকে একটি কাজের ব্যবস্থা করে দিন। এ সময় আমি একটি সামাজিক সংগঠনের সঙ্গে যোগাযোগ করি, তারা হেলালকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে দিতে এবং কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে এ ইজিবাইকটি উপহার দেন।

তিনি আরও বলেন, প্রতিটি সংগঠন যদি এমন অপরাধীদের স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে প্রচেষ্টা করে তাহলে দেশে অপরাধের সংখ্যাও কমে আসবে। অপরাধী হেলাল বর্তমানে জামিনে আছেন।

প্রতিবন্ধী শাহিনুর ইসলাম বলেন, আমার ইচ্ছে ছিলো যে এরা অপরাধের জগৎ থেকে বেরিয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসুক। এজন্য আমি আমার দুটি ভ্যান থেকে একটি ভ্যান এদের উপহার দিতে চেয়েছিলাম। আমি আমার একটি ভ্যান আমি আরেক জনকে উপহার দিয়েছি। আর নতুন ভ্যানটা দিয়ে আমি পেয়ারা ঝালমুড়ি বিক্রি করি। আমি আনন্দিত যে, যেই হেলাল আমার ভ্যান চুরি করেছিল সেই হেলাল আজ স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছে। এবং তার হাতে উপহারের ইজিবাইকের চাবি আমি তুলে দিয়েছি।

অপরাধী হেলাল উদ্দিন বলেন, আমি স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে চেয়েছিলাম। আমাকে এই সুযোগটি করে দেওয়ায় আমি আনন্দিত। আমি আর কোনোদিন এ অপরাধের জগতে পা রাখবো না। যারা এসব চুরি কাজে জড়িত তাদের উদ্দেশ্যে বলবো তারাও স্বাভাবিক জীবনে ফিরে এসে হালাল পথে উপার্জন করে জীবনটাকে উপভোগ করুক।

সামাজিক সচেতন সংস্থা’র সভাপতি হাবিবুর রহমান বলেন, ডিবি পুলিশের উপ-পরিদর্শক মফিজুল ভাই আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। আমরা এই অপরাধীকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরিয়ে দিতে তার কর্মসংস্থান করে দেওয়ার উদ্যোগ নেই। এরই ধারাবাহিকতায় আমরা তাকে আজ একটি ইজিবাইক উপহার দিয়েছি। যেটি চালিয়ে অপরাধী হেলাল জীবীকা নির্বাহ করবে এবং তার উপার্জনের কিছু অংশ আমাদের সংস্থায় দান করবে যেটি দিয়ে আমরা আরও দশটি লোকের সেবায় ব্যয় করতে পারি। আমরা চাই সকল অপরাধী এ অপরাধের জগৎ থেকে স্বেচ্ছায় বেরিয়ে আসুক।


এই বিভাগের আরো খবর