আহমাদুল কবির, মালয়েশিয়া থেকেঃ

মালয়েশিয়ায় হয়ে গেল স্মরণকালের সবচেয়ে ভয়াবহ বন্যা। এতে বিপুল পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতিসহ সারা দেশে প্রাণহানি ঘটেছে ১৪ জনের।

টানা ২৪ ঘণ্টার বৃষ্টির পানিতে দেশটির ১৩টি রাজ্যের মধ্যে ৯টি রাজ্যেই বন্যায় প্লাবিত হয়। এ সময় বন্যার পানিতে সেলাঙ্গর রাজ্যের শাহআলম এলাকার অন্যতম চেইন সুপারশপ মাইডিন প্লাবিত হয়। বুক সমান পানিতে সুপারশপের পণ্য ভেসে যায়। এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে একদল মানুষ মাইডিনের মালামাল লুট করে নিয়ে যায়।

এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ৭ বাংলাদেশিসহ বিভিন্ন দেশের ৩১ জন অভিবাসীকে গ্রেফতার করেছে রাজ্য পুলিশ। মঙ্গলবার (২১ ডিসেম্বর) দুপুরে মালয়েশিয়া ইমিগ্রেশন বিভাগের আপডেট নিউজ ভেরিফায়েড ফেসবুকে এক বিবৃতিতে এসব কথা বলা হয়েছে। আটককৃতদের মধ্যে বাংলাদেশের ৭, ইন্দোনেশিয়ার ১০, নেপালের ৯ ও মিয়ানমারের ৫ জন অভিবাসী রয়েছেন।

জেলা পুলিশের প্রধান সহকারী কমিশনার বাহারুদ্দিন মাত তৈয়ব জানান, জেলা পুলিশ সদর দফতরের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (আইপিডি) তাদের গ্রেফতার করেছে। দণ্ডবিধির ৪৫৭ ধারা অনুযায়ী মামলাটি তদন্ত করা হচ্ছে বলে তিনি এক বিবৃতিতে জানান।

পুলিশ সতর্ক করে দিয়ে বলেছে, কোনো প্রাকৃতিক দুর্যোগের সময় চুরি বা লুটতরাজ করার কোনো সুযোগ নেই। যদি এ ধরনের কর্মকাণ্ড কেউ করে থাকে তাহলে দেশের প্রচলিত আইনে বিচার করা হবে। এ ঘটনায় সমন্বিত একটি ১১ সেকেন্ডের ভিডিও ক্লিপ সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছিল।

সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন এ ঘটনা এমন ব্যক্তিদের দ্বারা সংঘটিত হয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে- যারা মারাত্মক বন্যার কারণে খাদ্য সরবরাহ শেষ হয়ে যাওয়ার কারণে বেশ কয়েকটি দোকানে প্রবেশ করতে বাধ্য হয়েছিল।