নীলাকাশ টুডেঃ বাগেরহাটের মোংলার চাঁদপাই ইউনিয়নের এক নম্বর ওয়ার্ডে চাঁদপাই মোড়ে নির্বাচনী সহিংসতায় ফাতেমা বেগম (৭০) নামে এক বৃদ্ধা নিহত হয়েছেন।

রবিবার রাত নয়টার দিকে দুই সদস্য প্রার্থীর মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় ফাতেমা বেগম নিহত হন।

সংঘর্সের সময় ১ নং ওয়ার্ডের বর্তমান সদস্য প্রার্থী মতিউর রহমান মোড়ল, বোরহান শেখ, মতিয়ার রহমান শেখ ও ইসরাফিল হোসেন আহত হয়েছেন। প্রার্থী মতিউর রহমান মোড়লসহ চারজনকে মোংলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে। সহিংসতার আশঙ্কায় এলাকায় পুলিশি টহল জোরদার করা হয়েছে।
মোংলা থানার ওসি মনিরুল ইসলাম ঘটনাস্থল থেকে জানান, চাঁদপাই ইউনিয়নের এক নম্বর ওয়ার্ডের চাঁদপাই মোড়ে রাত ৯টার দিকে বর্তমান ইউপি সদস্য ও প্রার্থী মতিউর রহমান মোড়লের সাথে তার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী শফিকুল ইসলামের সাথে কথা কাটাকাটি হয়। এরই এক পর্যায়ে সংঘর্ষ শুরু হলে প্রার্থী মতিউর রহমান মোড়ল, তার বৃদ্ধা ফুফু ফাতেমা বেগম, বোরহান শেখ, মতিউর রহমান শেখ ও ইসরাফিল হোসেন আহত হয়।

আহতদের দ্রুত মংলা হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা ফাতেমা বেগম মৃত ঘোষণা করেন। আহত অন্য চারজনকে মোংলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রাত পোহালেই নির্বাচন, এ ঘটনায় যাতে আরও বড় রকমের সহিংসতা ছড়িয়ে পড়তে না পারে সেজন্য অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ ঘটনায় এখনো কোনো মামলা হয়নি।

আরও পড়ুন

বান্ধবী হত্যার রহস্য ২১বছর পর উদঘাটন

আন্তর্জাতিক টুডেঃ ২১ বছর আগে হত্যা করেছিলেন বান্ধবীকে। কিন্তু পুলিশের কাছে ছিল না কোনো প্রমাণ। অবশেষে পুলিশ নাগাল পায় এই ঠাণ্ডা মাথার খুনির।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মার্কিন ধনকুবের রবার্ট ডার্স্টের বিরুদ্ধে বান্ধবী সুসান বারম্যানকে হত্যার অভিযোগ আদালতে প্রমাণিত হয়েছে।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০০০ সালে রবার্টের নিখোঁজ স্ত্রীর ব্যাপারে পুলিশের কাছে যাওয়া ঠেকাতে সুসানকে হত্যা করে রবার্ট। বেভারলি হিলের বাড়িতে ৫৫ বছর বয়সী সুসানের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করা হয়।

রবার্টকে নিয়ে মার্কিন টেলিভিশন চ্যানেল এইচবিও একটি অপরাধ বিষয়ক ডকুমেন্টরি ‘দ্য জিন্স’ নির্মাণ করেছে।

এমনকি ওই ডকুমেন্টরির শেষ পর্বেও রবার্টকে নিজের মনে বলতে শোনা যায়, আমি এ কী করলাম। সবাইকে হত্যা করলাম।

শেষ পর্ব প্রচারের আগেই ৭৮ বছর বয়সী রবার্টকে নিউ অরলিন্স থেকে সুসান হত্যার অভিযোগে গ্রেফতার করে পুলিশ। বিচারের সময় ওই ভিডিও ক্লিপটি প্রচার করা হয়েছিল বলে জানা গেছে।

আইনজীবীরা রবার্টকে ‘নার্সিসিস্টিক সাইকোপ্যাথ’ হিসেবে অভিহিত করেছেন।

সুসান একজন ক্রাইম রাইটার ছিলেন। স্ত্রী নিখোঁজ হওয়ার পর যখন রবার্টের দিকে পুলিশ সন্দেহের তীর ছোড়ে, তখন সুসান তার মুখপাত্র হিসেবে কাজ করেছেন।

রবার্টের প্রথম স্ত্রী ম্যাককম্যাক ডার্স্টকে ১৯৮২ সালে শেষবারের মতো দেখা গিয়েছিল। ২০১৭ সালে তাকে আইনগতভাবে মৃত ঘোষণা করা হয়। যদিও তার মৃতদেহ কখনোই পাওয়া যায়নি। তাই এজন্য কারো বিরুদ্ধে অভিযোগও তোলা হয়নি।