‘নিজের ফাঁসি’ নিজেই কার্যকর করবেন রাবি ছাত্রলীগ নেতা!


MD Nuruzzaman প্রকাশের সময় : অগাস্ট ১৯, ২০২৩, ২:৪৬ পূর্বাহ্ন /
‘নিজের ফাঁসি’ নিজেই কার্যকর করবেন রাবি ছাত্রলীগ নেতা!

এক শিক্ষার্থীকে টাকার বিনিময়ে ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতি করে ভর্তি সুযোগ করা দেওয়া এবং চুক্তির সম্পূর্ণ টাকা না দেওয়ায় অপহরণ করার অভিযোগে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের কয়েক নেতাকর্মীসহ সাত-আটজনের নামে মামলা হয়েছে।

এর প্রেক্ষিতে শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শাহ মখদুম হলের সামনে সংবাদ সম্মেলন করেন মামলার অন্যতম আসামি এবং বিভিন্ন সময়ে গণমাধ্যমে ‘প্রক্সিকাণ্ডের মূল হোতা’ হিসেবে নাম উঠে আসা শাখা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মুশফিক তাহমিদ তন্ময়।

সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, আমার নামে সুষ্ঠু তদন্ত করে যদি কিছু প্রমাণিত হয়, তাহলে প্রশাসন ভবনের সামনে আমি আমার ফাঁসি নিজে কার্যকর করব। নিজের গলায় নিজেই দড়িটা দিব। রাজুর (মামলার আরেক আসামি) সঙ্গে ফোনে কখনো আমার কোনো যোগাযোগ হয়নি। যে ব্যক্তির সঙ্গে আমার ফোনেই কথা হয় না, তার সঙ্গে কিভাবে আমার যুক্ত হওয়া সম্ভব।

সংবাদ সম্মেলনের প্রথমে লিখিত বক্তব্যে মুশফিক তাহমিদ তন্ময় বলেন, আমার বিরুদ্ধে জনৈক মোছা. রেহেনা বেগম এবং রাজশাহীর বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের দায়েরকৃত এজাহার সম্পূর্ণভাবে ভিত্তিহীন, ষড়যন্ত্রমূলক ও রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। বৃহস্পতিবার গণমাধ্যম এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশিত খবর থেকে একটি অপহরণ এবং প্রক্সি জালিয়াতির ঘটনা জানতে পারি। গণমাধ্যমে প্রকাশিত খবর অনুযায়ী, ঘটনাটি (অপহরণ) শেরে বাংলা হলে ঘটে।

তিনি বলেন, পরবর্তীতে শুক্রবার সকালে জানতে পারি যে, ওই ঘটনায় আমাকে জড়িয়ে দুইটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। আমাকে একটি মামলায় এক নম্বর এবং আরেকটি মামলায় তিন নম্বর আসামি করে মতিহার থানায় মামলার আবেদন করা হয় এবং এই খবরটি দ্রুত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। এটা আমার জন্য সম্পূর্ণভাবে অনাকাঙ্ক্ষিত। ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত থাকার কারণে এর আগেও আমার বিরুদ্ধে নানারকম ষড়যন্ত্রমূলক প্রচেষ্টা চালানো হয় এবং সবগুলোই মিথ্যা বলে প্রমাণিত হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তদন্তে এটা প্রমাণিত হয় যে, আমি বারবার ষড়যন্ত্রের শিকার।