নীলাকাশ টুডেঃ প্রেমিক খুঁজছেন মিয়া খলিফা! সোশ্যাল মিডিয়া ইনফ্লুয়েন্সার ও স্পোর্টস ব্রডকাস্টার হিসেবে পরিচিত সাবেক এ পর্ন তারকা বিচ্ছেদের পর এখন আছেন নতুন প্রেমিকের সন্ধানে, এমন গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে ইন্টারনেটে। এর আগে ২০১৯ সালে এক সুইডিশ শেফের সাথে আংটি বদল করেছিলেন মিয়া। গত বছরের জুনে তাদের বিয়ে হওয়ার কথা থাকলেও লকডাউনের কারণে তা ভেস্তে যায়। চলতি বছরের জুলাইয়ে নিজেদের বিচ্ছেদের কথা জানিয়েছিলেন মিয়া।

বিয়ে ভাঙার পর বেশ কিছুদিন হতাশ ছিলেন মিয়া খলিফা। তবে হতাশাকে দীর্ঘ না করে তিনি চান, নতুন করে জীবন শুরু করতো।

এদিকে জানা গেছে মিয়া খলিফাকে খুশি করতে নানাভাবে চেষ্টা করছেন অনেকেই। সম্প্রতি এক ট্যাটু আর্টিস্ট মিয়া খলিফার ছবি ট্যাটু করিয়েছেন নিজের পায়েই। ট্যাটু আর্টিস্ট ০১ নামক একটি ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট থেকে ওই ভিডিও পোস্ট করেছেন তিনি। শোনা যাচ্ছে, সেই ট্যাটু শিল্পী দিল্লির বাসিন্দা এবং মিয়ার প্রতি ভালবাসা ব্যক্ত করতেই এ কাজ করেছেন তিনি।

সূত্র যমুনা টেলিভিশন

আরও পড়ুন

মাস্ক না পরায় সাবেক প্রধানমন্ত্রীকে জরিমানা

নীলাকাশ টুডেঃ প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে বিপর্যস্ত গোটা বিশ্ব। এই ভাইরাসের ছোবলে প্রতিদিন সংক্রমিত হচ্ছে লাখ লাখ মানুষ। দৈনিক মৃত্যুও হচ্ছে হাজার হাজার মানুষের। এমতাবস্থায় বিশ্বজুড়েই স্বাস্থ্যবিধি কঠোরভাবে প্রতিপালনের ওপর গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে।

আর বিষয়টি উপেক্ষা করায় বিভিন্ন দেশে আইনগত পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে প্রচলিত আইন অনুযায়ী।
এবার স্বাস্থ্যবিধি না মানায় আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হল অস্ট্রেলিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী টনি অ্যাবটের বিরুদ্ধে। মাস্ক না পরার অভিযোগে জরিমানা করা হয়েছে তাকে। গত ৮ সেপ্টেম্বর সিডনির একটি সমুদ্রসৈকতে মাস্ক ছাড়া অবস্থায় তার একটি ছবি তুলে পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন এক ব্যক্তি। এ অভিযোগের ভিত্তিতে নিউ সাউথ ওয়েলস রাজ্য পুলিশ সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীকে ৫০০ অস্ট্রেলীয় ডলার জরিমানা করে। জনস্বাস্থ্যবিধি লঙ্ঘনের দায়ে তাকে এ জরিমানা করা হয়।

তবে পুলিশের সময় নষ্ট করবেন না জানিয়ে জরিমানা প্রদান করার কথা জানিয়েছেন টনি অ্যাবট। তিনি বলেন, “আমি স্বাস্থ্যবিধি মেনেই সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে শরীরচর্চা করছিলাম।

এ সময় মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক নয়। তবে আমি এই জরিমানার বিরুদ্ধে অবস্থান করে পুলিশের সময় নষ্ট করব না। ” সূত্র: সিডনি মর্নিং হেরাল্ড