প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ সাম্প্রতিক সময়ে লাগামহীন দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতির ফলে সাধারণ জনগণ দুর্বিষহ জীবনযাপন করছে। আজ ৫ জানুয়ারি বাংলাদেশ লেবার পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে কার্যনির্বাহী পরিষদের মিটিং অনুষ্ঠিত হয়। বাংলাদেশ লেবার পার্টির চেয়ারম্যান হামদুল্লাহ আল মেহেদীর সভাপতিত্বে এবং মহাসচিব আব্দুল্লাহ আল মামুন এর সঞ্চালনায় মিটিং অনুষ্ঠিত হয়। মিটিং পরবর্তীতে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ সরকার বলে দাবি করেন দলটির নেতৃবৃন্দ।

হামদুল্লাহ আল মেহেদী তার বক্তব্যে বলেন, রাষ্ট্রপতির সংলাপ কতটুকু ফলপ্রসূ হবে তা জনগণের কাছে সন্দিহান। তবে একটি বিষয় অন্যান্য রাজনৈতিক দল ও ভাবছে না আর তা হচ্ছে সাধারণ জনগণের জীবনমান কিভাবে স্বাভাবিক রাখা যায়। বিএনপি জনগণের অধিকার নিয়ে কথা না বলে শুধুমাত্র দলের চেয়ারপারসনের চিকিৎসার বিষয়ে কথা বলছে। যদিও তারা দাবি করে বিএনপি গণমানুষের দল। কিন্তু আমরা বাস্তবে তার কোন প্রমাণ দেখতে পাচ্ছি না। আবার বর্তমান সরকার উন্নয়নের কথা বললেও সমানতালে দুর্নীতি অব্যাহত রেখেছে। বাংলাদেশ লেবার পার্টি আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে সারা বাংলাদেশে মাঠ গোছানোর কাজ শুরু করেছে।

আব্দুল্লাহ আল মামুন তার বক্তব্যে বলেন, দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ সরকার। চাল-ডাল-তেল-লবণ সাধারন জনগনের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে। টিসিবির নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের বিতরনে রয়েছে নানাবিধ অনিয়ম। অতিরিক্ত দামে চাল-ডাল-তেল-লবণ বিক্রির অভিযোগ গণমাধ্যমে উঠে আসছে। বাজার সিন্ডিকেটের দৌরাত্ম্যের ফলে সরকার এখন দিশেহারা। সেই ক্ষেত্রে আমরা বলতে পারি বর্তমান বানিজ্য মন্ত্রী বাজার নিয়ন্ত্রণে পুরোপুরি ব্যর্থ। বাংলাদেশ লেবার পার্টির পক্ষ থেকে অনতিবিলম্বে নিত্যপণ্যের বাজার স্বাভাবিক করার জন্য মনিটরিং ব্যবস্থা জোরদারের আহ্বান জানাচ্ছি। সব সময় সাধারণ জনগণের অধিকার নিয়ে কাজ করি।

মিটিংয়ে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন দলের ভাইস চেয়ারম্যান এম এস জামান, মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন, যুগ্ম মহাসচিব কামরুল ইসলাম সুরুজ, সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ইসলাম কাজল, শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক মোরশেদ আলম শেখ, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক তরিকুল ইসলাম, দপ্তর সম্পাদক মাওলানা ওবায়দুর রহমান,মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মেঘলা আক্তার, নির্বাহী সদস্য আওলাদ হোসেন।

বার্তা প্রেরক
মাওলানা ওবায়দুর রহমান
দপ্তর সম্পাদক
বাংলাদেশ লেবার পার্টি