নীলাকাশ টুডেঃ যখন প্রেমে পড়েন, তখনও ‘অস্বাভাবিক’ কিছু চোখে পড়েনি। প্রেমিকার যে এমন শখ রয়েছে, তা ঘুণাক্ষরেও টের পাননি প্রেমিক। ঘনিষ্ঠ মুহূর্তেই ঘটল এমনই এক ঘটনা, যাতে আত্মারাম খাঁচাছাড়া হওয়ার জোগাড় প্রেমিকের। কাছে আসার আগে প্রেমিকা জানালেন, তাঁর এক পোষ্য আছে। সেই পোষ্যটিকে হাতে করে নিয়ে এলেন তিনি। সাধের পোষ্যটি কুকুর-বিড়াল নয়, একটি সাপ!

 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ওই যুবক সম্প্রতি সংবাদমাধ্যমে জানিয়েছেন, প্রেমিকা সাপটিকে ডাকেন সিড নামে। উত্তেজনা বাড়াতে সেটিকে শরীরে পেঁচিয়ে নাচও করেন তাঁর সামনে। কিন্তু তাতে আদৌ উত্তেজিত হননি তিনি। বরং ঘনিষ্ঠ হওয়ার আগে এ হেন দৃশ্য দেখে ভয়ে কাঠ হয়ে গিয়েছিলেন তিনি। শুধু তা-ই নয়, যুবকের অভিযোগ, তাঁর সামনেই সাপটিকে ইঁদুরও খাওয়ান প্রেমিকা।

 

সর্প বিড়ম্বনায় কার্যত লখিন্দরের দশা যুবকের। তবে এ ক্ষেত্রে বাসর ঘরে সাপের কামড় না খেলেও সাপের শীতল স্পর্শে কমে যাচ্ছে উষ্ণতা, স্বীকারোক্তি যুবকের। প্রেমিকাকে ভালবাসলেও তাঁর প্রিয় পোষ্যকে কিছুতেই মেনে নিতে পারছেন না তিনি। কিন্তু সম্পর্ক ভেঙে যাওয়ার ভয়ে কিছু বলতেও পারছেন না মুখ ফুটে। সংবাদমাধ্যমে এই স্বীকারোক্তি প্রকাশের পরই শুরু হয়েছে জোর চর্চা। কারও বক্তব্য, বিপদকে এ ভাবে গলায় জড়িয়ে বসে থাকা মোটেই সুস্থতার লক্ষণ নয়। কারও বক্তব্য, কথোপকথনের মাধ্যমেই সমাধান করতে হবে বিষয়টির। তাই ভয় চেপে রাখলে হবে না। প্রেমিকাকে খুলে বলতে হবে সে কথা। সূত্র আনন্দ বাজার