নিজস্ব প্রতিনিধি, ঢাকাঃ বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘নির্বাচন ঘনিয়ে এলেই বিরোধী শক্তিকে দমাতে সরকার গায়েবি মামলার কৌশল অবলম্বন করে। বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের মামলা দিয়ে ব্যস্ত রেখে নিজেদের কাজ শেষ করে নেবে ক্ষমতাসীনরা।’

মাহমুদুর রহমান মান্নার নাগরিক ঐক্যের উদ্যোগে আয়োজিত বুধবার রাজধানীর প্রেস ক্লাবে ‘দেউলিয়াত্ব ঘোচাতে দুর্ভিক্ষের নাটক, দেশ কোন পথে’ শীর্ষক সেমিনারে তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘তাদের পুরোনো খেলা, ঘটনা ঘটাব আমরা, মামলা খাবে তোমরা।’

তিনি বলেন, ‘আবার তারা শুরু করেছে। ইতোমধ্যে ৯৬টি মামলা হয়েছে। সাড়ে চার হাজার আসামি করা হয়েছে। আরও ১০ হাজার অজ্ঞাতনামা। তাদের পুরোনো খেলা, ঘটনা ঘটাব আমরা, মামলা খাবে তোমরা। সেই মামলার পেছনে এক মাস, দুই মাস ঝুলতে থাকবে। আদালত, জেলখানায় দৌড়াতে থাকবে। এর মধ্যে আমরা আমাদের কাজ শেষ করব।’

তিনি বলেন, ‘প্রতিবার নির্বাচনের সময় এলে নতুন নতুন কৌশল আবিষ্কার করেন ক্ষমতাসীনরা। বিএনপির আন্দোলনকে নিয়ে মানুষের মনোযোগ অন্যদিকে সরাতে চায় সরকার। নতুন নাটক জঙ্গি ছিনতাই হয়ে যাওয়া। মানুষ যে দাবি তুলেছে, আন্দোলন শুরু হয়েছে- তা থেকে মনোযোগ সরাতে এগুলো সব নাটক তৈরি করা হচ্ছে।’

আগামী ১০ ডিসেম্বর ঢাকায় সমাবেশ করতে চাচ্ছে বিএনপি, সেটি দলটির বিভাগীয় পর্যায়ের শেষ সমাবেশ। তবে কোন জায়গায় এ সমাবেশ করতে পারবে তারা, সেটির অনুমতি এখনো পায়নি।

ঢাকার সমাবেশ নয়াপল্টনেই হবে জানিয়ে ফখরুল বলেন, ‘পরিষ্কার করে বলেছি, যেহেতু আমরা সব সময় নয়াপল্টনে সমাবেশ করি, সেহেতু ১০ তারিখের সমাবেশও অবশ্যই নয়াপল্টনেই করব। এর জন্য ডিএমপিসহ যারা দায়িত্বে আছেন, তাদের বলতে চাই, কোনো ঝামেলা না করে আমরা যেন সমাবেশ করতে পারি, সে ব্যবস্থা করবেন।