নীলাকাশ টুডেঃ ২০২০ সালে করোনা মহামারির প্রাদুর্ভাব শুরুর পর বিশ্বের অনেকের মতোই বদলে গেছে এক তরুণ উদ্যোক্তার জীবন। কোভিড ভাইরাস বোধহয় তার জীবনে অন্য অনেকের চেয়ে একটু বেশিই প্রভাব ফেলছে। কারণ আর কিছুই নয়, ভারতের বাসিন্দা ওই যুবকের নামই কোভিড কাপুর। তার জন্ম অবশ্য ভাইরাস ‘কোভিড’ আসার বহু আগে, ১৯৯০ সালে।

সম্প্রতি নিজের টুইটারে ভ্রমণ বিষয়ক প্রতিষ্ঠান ‘হলিডিফাই’ এর সহ প্রতিষ্ঠাতা কোভিড কাপুর জানান, তার এই নাম হয়ে উঠেছে লোকের মজার খোরাক। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ইন্ডিপেন্ডেন্ট এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

টুইটারে তিনি জানিয়েছেন, মানুষ তার নাম শুনে ‘মজা’ পায়। আর এর জন্য দায়ী করোনা মহামারি।

কোভিড টুইটারে লিখেছেন, করোনা মহামারি শুরু হওয়ার পর প্রথমবার দেশের বাইরে গিয়ে নাম নিয়ে বেশ বিপাকে পড়েছেন তিনি। তার এই নাম নিয়ে মানুষ হাসাহাসি করেছে।

কোভিড জানান, তার নামের আসল অর্থ ‘পণ্ডিত’ বা ‘জ্ঞানী’ ব্যক্তি। রামায়ণের হনুমানের প্রতি নিবেদিত অওধী ভাষায় লিখিত জনপ্রিয় ভক্তিমূলক হনুমান চল্লিশা থেকে তার এই নাম নেওয়া হয়েছে।

কোভিডের টুইটারের বায়োতে বলিউড তারকা শাহরুখ খানের ‘মাই নেম ইজ খান আর আমি সন্ত্রাসী নই’ ডায়লগের অনুকরণে লেখা, ‘আমার নাম কোভিড আর আমি কোনো ভাইরাস নই।’

তরুণ এই উদ্যোক্তা আরও জানান, ৩০তম জন্মদিনে তার বন্ধুরা যে কেক অর্ডার দিয়েছিল সেখানে করোনা ভাইরাসের সঠিক বানান কোভিড লেখা ছিল। কোভিড তার নামের বানান লেখেন ইংরেজি ‘কে’ অক্ষর দিয়ে। কিন্তু ভাইরাসের ক্ষেত্রে কোভিড লেখা হয় ইংরেজি ‘সি’ অক্ষর দিয়ে।

এমনকি গুগলও তার নামের বানান ভুল লেখা হয়েছে কী না জানতে চায় বলে জানিয়েছেন কোভিড।