নীলাকাশ টুডেঃ ফার্মাসিস্ট চিন্ময় সাহা সৌরভের সঙ্গে গেল ১২ আগস্ট আশীর্বাদ সম্পন্ন হয়েছে এই সময়ের শ্রোতাপ্রিয় সংগীতশিল্পী সুস্মিতা সাহার। আবার আশীর্বাদের ঠিক এক মাস পর পরই অর্থাৎ গেল ১২ সেপ্টেম্বর ছিল তার জন্মদিন।

জন্মদিন প্রসঙ্গে সুস্মিতা সাহা বলেন, বেশ ভালো কেটেছে, যেমনটি সবার কাটে। অনেকেই শুভেচ্ছা জানিয়েছেন ফেসবুকে-সেলফোনে। জন্মদিনের শুরুর প্রহর থেকে শেষ পর্যন্ত সবার শুভেচ্ছা ও ভালোবাসায় আমি আবেগাপ্লুত ছিলাম। সবাই আমার জন্য আশীর্বাদ করবেন, যেন আগামী দিনগুলো ভালো কাটে।

সুস্মিতা জানান, আপাতত স্টেজ শো নেই। তবে টিভি শো’ নিয়ে ব্যস্ত আছেন তিনি। এদিকে আগামী ২১ সেপ্টেম্বর বিটিভিতে গাজী মাজহারুল আনোয়ারকে নিয়ে ‘স্মৃতিময় গানগুলো’ অনুষ্ঠানে গাইবেন সুস্মিতা সাহা। সুস্মিতা সাহা নিয়মিত টিভিতে উপস্থাপনাও করছেন। প্রতি বৃহস্পতিবার বিটিভির সুপ্রভাত বাংলাদেশের অনুষ্ঠনের উপস্থাপনা করছেন তিনি।

সুস্মিতা সাহার সঙ্গে কিছু দিন আগেই একটি অনুষ্ঠানে দেখা হয়েছিল সংগীতশিল্পী চম্পা বণিক ও অনন্যা আচার্যের। রূপা চক্রবর্ত্তীর আয়োজনে একটি আবৃত্তির অনুষ্ঠানে তারা তিনজনই সংগীত পরিবেশন করেছিলেন। গত রবিবার ঢাকা ব্যাংকের আয়োজনে চম্পা বণিক একটি অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশন করেন। এ ছাড়া গেল ৮ সেপ্টেম্বর গাজী মাজহারুল আনোয়ারের শ্রদ্ধায় সংগীত পরিবেশন করেন চম্পা আরটিভিতে।

চম্পা বলেন, শ্রদ্ধেয় গাজী মাজহারুল আনোয়ার স্যারের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে কিছু গান গাইবার সুযোগ করে দিয়েছিল আরটিভি। সেই সঙ্গে অনুষ্ঠানে উপল ভাই এবং দিঠি আপুর উপস্থিতিও ছিল অনুষ্ঠানের সবচেয়ে বড় সৌন্দর্য। স্যারের এই চলে যাওয়ায় আমাদের সংগীতাঙ্গনে অনেক বড় শূন্যতার সৃষ্টি হয়েছে।

এদিকে দুদিন আগেই এনটিভির মিউজিক্যাল লাইভ অনুষ্ঠানে অনন্যা আচার্য্য সংগীত পরিবেশন করেছেন। অরুণ চৌধুরীর পরিচালনায় ‘মায়াবতী’ সিনেমায় অনন্যা আচার্য্যর প্রথম প্লেব্যাক করা। এরই মধ্যে তিনি ‘টুঙ্গিপাড়ার দুঃসাহসী খোকা’য় প্লেব্যাক করেছেন।

অনন্যা বলেন, সব মিলিয়ে এ মুহূর্তে কাজ নিয়ে আমি সন্তুষ্ট। বেশ কিছু মৌলিক গান করেছি। সেই সঙ্গে সিনেমাতেও প্লেব্যাক করেছি। এগুলো প্রকাশ পেলে শ্রোতারা ভালো কিছু গান শুনতে পাবেন। আর এরই মধ্যে আমরা শ্রদ্ধেয় গাজী স্যারকে হারিয়েছি। তার এই চলে যাওয়াটা আমাদের জন্য সত্যিই ভীষণ ক্ষতির হলো। এই শূন্যতা পূরণের নয়।