ইউক্রেনজুড়ে রাশিয়ার মিসাইল বৃষ্টি


MD Nuruzzaman প্রকাশের সময় : মার্চ ১০, ২০২৩, ২:২৮ পূর্বাহ্ন /
ইউক্রেনজুড়ে রাশিয়ার মিসাইল বৃষ্টি

 

রাজধানী কিয়েভসহ ইউক্রেনজুড়ে ব্যাপক মিসাইল হামলা চালিয়েছে রাশিয়া। এর মধ্যে কিনঝাল ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র এবং এয়ার-লঞ্চড (বিমান থেকে ছোড়া) ক্রুজ মিসাইল রয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতের এই হামলাকে নজিরবিহীন বলে উল্লেখ করেছেন ইউক্রেনীয় কর্মকর্তারা। সেই সঙ্গে এসব হামলায় অনেক হতাহতের আশঙ্কা করা হচ্ছে।

ইউক্রেনীয় সামরিক বাহিনীর বরাত মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন জানিয়েছে, দেশটির বিভিন্ন অবকাঠামো লক্ষ্য করে রুশ বাহিনী ‘ভয়ংকর আক্রমণ’ চালিয়েছে। এসব হামলায় অন্তত ৮১টি ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করা হয়েছে। যার মধ্যে ৬টি কিনঝাল ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র রয়েছে। রাশিয়ার কিনঝাল ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র আটকানোর ক্ষমতা নেই ইউক্রেনের আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার।

 

ইউক্রেনের এয়ার ফোর্স কমান্ডের মুখপাত্র ইউরি ইহানাত বৃহস্পতিবার সকালে ইউক্রেনীয় টেলিভিশনকে বলেছেন, আক্রমণটি সত্যিই ভয়ংকর। তাছাড়া সর্বশেষ হামলায় প্রথমবারের মতো এই ধরনের ভয়ানক মরণাত্মক ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করা হয়েছে। আমাদের জানা মতে, হামলায় ৬টির মতো কিনঝাল ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করা হয়েছে। এটি এমন একটি আক্রমণ, যা আমি আগে দেখেছি বলে আমার মনে পড়ছে না।

কিনঝাল ক্ষেপণাস্ত্র প্রসঙ্গে ইউক্রেনের এই কর্মকর্তা বলেন, এখন পর্যন্ত আমাদের এমন কোনো ব্যবস্থা নেই, যা দিয়ে এই অস্ত্রগুলো মোকাবেলা করা যাবে। হামলায় ৬টি এক্স-২২ এয়ার-লঞ্চড ক্রুজ মিসাইলও ব্যহার করা হয়েছে বলে দাবি করেন ইউরি ইহানাত।

অপরদিকে ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি বৃহস্পতিবার এক ফেসবুক বার্তায় বলেছেন, ‘এটি একটি ভয়ংকর রাত ছিল।’

তিনি বলেন, শত্রুরা আবারও তাদের ন্যাক্কারজনক কৌশল ব্যবহার করছে। ইউক্রেনীয়দের মধ্যে আবারও আতঙ্ক তৈরি করতে ৮১টি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে। দখলদাররা কেবল বেসামরিক মানুষকে আতঙ্কিত করতে পারে। কিন্তু এটা তাদের জন্য সুখকর হবে না। তারা যা করেছে, তার দায় এড়াতে পারবে না।

ফেসবুক বার্তায় ইউক্রেনের ১০টি অঞ্চলের তালিকাও উল্লেখ করেছেন জেলেনস্কি, যেসব অঞ্চলে হামলা চালিয়েছে রুশ বাহিনী। এর মধ্যে রয়েছে দিনিপ্রো, ওডেসা, খারকিভ এবং জাপোরিঝিয়া। হামলায় গুরুত্বপূর্ণ অবকাঠামো এবং আবাসিক ভবনগুলোকে টার্গেট করা হয়েছে।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘দুর্ভাগ্যবশত এসব এলাকায় অনেক হতাহতের ঘটনা ঘটেছে। আমি তাদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছি।’